ছাত্রীদের শর্ট স্কার্ট পরতে নিষেধ করে বিপাকে বিশ্ববিদ্যালয়

Rate this item
(2 votes)
যুক্তরাজ্যের কুইন্স ইউনিভার্সিটি বেলফস্টে (কিউইউবি) তাদের গ্র্যাজুয়েশন অনুষ্ঠানে ছাত্রীদের শর্ট স্কার্ট পরতে নিষেধ করে ব্যাপক সমালোচনার মুখোমুখি হয়েছে। অনেকেই একে সম্পূর্ণ অযাচিত নির্দেশনা হিসেবে বলছেন।

সম্প্রতি এ বিশ্ববিদ্যালয়টি তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছে তাদের পরবর্তী গ্র্যাজুয়েশন অনুষ্ঠানের ঘোষণা। এতে তারা জানিয়েছে পরবর্তী গ্র্যাজুয়েশন অনুষ্ঠানের জন্য নানা টুকিটাকি নির্দেশনা ও পোশাক-আশাক সম্পর্কে ধারণা, যা লিখেছেন সাবেক শিক্ষার্থী থম ডিকারসন। তিনি বর্তমানে একটি টেইলারিং কম্পানি চালাচ্ছেন।

তিনি লিখেছেন, 'গ্যাজুয়েশন অনুষ্ঠান সম্পর্কে ছাত্রীরা যে সবচেয়ে বড় ভুলটি করেন তা হলো, এটিকে নাইট আউটের মতো দেখা। যদিও গ্র্যাজুয়েশন একটি আনুষ্ঠানিক বিষয় এবং এতে ড্রেস কোডও তেমন থাকা উচিত। শর্ট স্কার্ট ও ক্লিভেজ শো সম্পূর্ণ প্রশ্নাতীত বিষয়। '

এখানেই শেষ নয়, তিনি লিখেছেন পোশাক বিভ্রাট এড়াতে এ অনুষ্ঠানে সর্বদা ছাত্রীদের সেফটি পিন ব্যবহার করা উচিত।

এ ধরনের মন্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়টির গ্র্যাজুয়েশন ছাত্রীদের মাঝে বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে। তারা অনেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে এ ধরনের পরামর্শ প্রকাশকে অযাচিত ও তাদের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ বলে মনে করছেন।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিভাগের ছাত্রী সারাহ রাইট বলেন, এ পরামর্শগুলো ভয়ানক। এটা খুবই ভয়ানক যে, নারী গ্র্যাজুয়েটদের জন্য কিউইউবি এ ধরনের বিষয়বস্তু কিভাবে প্রকাশ করল এ ধরনের সেক্সিস্ট পরামর্শ। এ নারী শিক্ষার্থীরা হাজারো পাউন্ড ব্যয় করে একাধিক বছর ধরে এ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়েছে সম্মানজনক শিক্ষার জন্য।

তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের উচিত ছিল তাদের অর্জন সম্পর্কে দৃষ্টি নিবদ্ধ করতে। এখানে তাদের পছন্দ-অপছন্দের ওপর হস্তক্ষেপ করা অনচিত।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদের ওয়েবসাইট ক্রমাগত আপডেট করছে। এতে নতুন টিপস ও তথ্য দেওয়া হচ্ছে গ্র্যাজুয়েট শিক্ষার্থীদের জন্য। এটি একটি ডায়নামিক ওয়েবপেইজ, যা ক্রমাগত আপডেট হচ্ছে। বর্তমানে এতে প্রকাশিত হয়েছে নতুন গ্র্যাজুয়েটদের অর্জন বিষয়ে নানা তথ্য।
0 awesome comments!
Scroll to Top